IEEEXTREME প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় লিডিং ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের অভাবনীয় সাফল্য

বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান Institute of Electrical and Electronics Engineers (IEEE) আয়োজিত IEEEXTREME প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় লিডিং ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছেন। IEEEXTREME হচ্ছে একটি বৈশ্বিক অনলাইন প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা যেখানে সারা বিশ্বের IEEE-র সদস্যপদ-প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। এবছর এই প্রতিযোগিতার চতুর্দশ সংস্করণ IEEEXTEME 14 গত ২৪শে অক্টোবর অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সারাবিশ্বের বিভিন্ন বিশবিদ্যালয়ের প্রায় চার হাজার দল অংশগ্রহণ করে। বাংলাদেশেরও পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে ১৩০টি দল প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।

প্রতিযোগিতায় লিডিং ইউনিভার্সিটির LUTypewriters দলটি মোট ৯০২ পয়েন্ট অর্জন করে বাংলাদেশের ১৩০টি দলের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করে। দলটি বৈশ্বিক মেধাতালিকায় ১৪৯তম অবস্থানে ছিলো। এই দলের সদস্যরা হচ্ছেন বিশবিদ্যলয়ের কম্পউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী আবির সাদাত ওয়াসিম, আব্দুল্লাহ নাইম এবং মোঃ জহিরুল ইসলাম হৃদয়। প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের সেরা ১০টি দলের মধ্যে LUTypewriters ছাড়াও লিডিং ইউনিভার্সিটির আরও তিনটি দল স্থান পায়। হুমায়ুন কিবরিয়া সাকিব, কামনাশিষ রায়, আহসানুর রহমান নাসিমের LUZeroIQ ৬ষ্ঠ, হৃদয় চৌধুরী, মাহেদ আহমেদ চৌধুরী, বিলাস হালদারের LUSmallCamp ৭ম, এবং মোঃ মিসবাহ উদ্দিন তারেক, মাজহারুল ইসলাম, মোঃ তানজিম ফেরদৌসের LURisingStar ৯ম স্থানের থাকার গৌরব অর্জন করে। প্রতিযোগিরা সবাই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থী। দলগুলোর সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন সিএসই বিভাগের প্রভাষক মোঃ সাইদুর রহমান কোহিনুর।

বিশ্ববিদ্যালয়ের (ভারপ্রাপ্ত) উপাচার্য বনমালী ভৌমিক বিজয়ী শিক্ষার্থীদেরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তিনি জানান, সংশ্লিষ্ট বিভাগের সব শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে এই সাফল্য অর্জিত হয়েছে, যা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনামকে বহুগুণ বাড়িয়ে দিবে। আমাদেরকে এখন এই সাফল্য ধরে রাখায় সচেষ্ট হতে হবে। সিএসই বিভাগের (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান সহকারী অধ্যাপক আরিফ আহমদ জানান, বছরব্যাপী ছাত্রদের প্রোগ্রামিং চর্চা এবং প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের ফলাফল আজকের এই সাফল্য। বিভাগের কিছু মেধাবী ছাত্র দৈনন্দিন পড়াশুনার পাশাপাশি নিয়মিত প্রোগ্রামিং অনুশীলন করেন এবং জুনিয়র ছাত্রদের নির্দেশনা দেন। এছাড়া সিএসই বিভাগের পক্ষ থেকেও সারা বছর ধরে প্রোগ্রামিং ওয়ার্কশপ এবং প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। ভবিষ্যতেও বিভাগের প্রোগ্রামিং কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.